গ্রাফিক ডিজাইনের আদ্য পান্ত - Graphic School

Blog

গ্রাফিক ডিজাইনের আদ্য পান্ত

গ্রাফিক ডিজাইন কি?

যখন কোন কাল্পনিক আর্টকে আমরা কোন পৃষ্ঠে বিভিন্ন লাইন, শেপ, টেক্সচার, স্পেস, ফর্ম, টাইপোগ্রাফি ইত্যাদির মাধ্যমে প্রকাশ করব তখন সেই প্রকাশিত শিল্পকে আমরা গ্রাফিক বলবো। বর্তমানে গ্রাফিক ডিজাইন ছাড়া প্রযুক্তি কল্পনা করা যায়না।

গ্রাফিক ডিজাইন কেন শিখব?

বর্তমান বিশ্ববাজারে গ্রাফিক ডিজাইনারের অনেক কদর। একজন গ্রাফিক ডিজাইনার অনলাইনে এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে সাবলম্বি হতে পারবেন। অনলাইন মার্কেটপ্লেসে অসংখ্য গ্রাফিক ডিজাইনার আছে কিন্তু বায়ারের চাহিদা অনুযায়ী কাজ করতে পারে খুব কম ডিজাইনার। তাই ভাল ভাবে কাজ শেখার কোন বিকল্প নেই।

গ্রাফিক ডিজাইন কিভাবে শিখব?

গ্রাফিক ডিজাইন শেখার জন্য অবস্যই কোন উন্নত মানের প্রতিষ্ঠানের স্বরনাপন্ন হতে হবে। আমাদের দেশে অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যেখান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আপনি গ্রাফিক ডিজাইন শিখতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আমাদের প্রতিষ্ঠান গ্রাফিক স্কুলের সাহায্য নিয়ে আপনি উন্নত মানের শিক্ষার নিশ্চয়তা পাবেন। গ্রাফিক স্কুল ভিডিও টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে ঘরে বসে আপনাকে একজন উন্নত মানের গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে তৈরি করতে সর্বাত্বক সাহায্য সহযোগিতা করবে।

একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হতে কতটুকু শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন?

আপনি যত শিক্ষিত হবেন তত আপনার কাজের মান বৃদ্ধি পাবে। তবে একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হতে নুন্যতম উচ্চমাধ্যমিক পাস করা জরুরী। কারন গ্রাফিক ডিজাইন এবং অনলাইনে কাজের জন্য বেসিক ইংরেজী জানা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। অতএব, সুশিক্ষা একজন মানুষকে উন্নত ভবিষ্যতের দিকে প্রসারিত করে।

একজন গ্রাফিক ডিজাইনারের মাসিক আয় কত?

একজন দক্ষ গ্রাফিক ডিজাইনারে মাসিক আয় গড়ে প্রায় ৩৫০০ হাজার মার্কিন ডলার যার বাংলাদেশী মুল্য প্রায় ২৮০০০০ থেকে ২৯০০০০ হাজার টাকা। যদিও এই লেভেলের দক্ষ হতে আপনাকে অনেক সময় ও শ্রম দিতে হবে। তাই এখনি শুরু করুন এবং ধিরে ধিরে আপনার দক্ষতার মান উন্নয়ন করুন। সুতরাং যে পেশায় এত আয়ের সুযোগ আছে তাহলে কেন আপনি এ পথ বেছে নেবেন না?

এর জন্য কোন কোন সফটওয়্যারের কাজ শিখতে হবে?

গ্রাফিক ডিজাইন শিখতে সর্বনিম্ন ২ টি সফটওয়্যার খুব ভাল ভাবে জানতে হবে। (১)ফটোশপ (২)ইলাস্ট্রেটর। এই দুইটি সফটওয়্যার খুব ভাল ভাবে আয়ত্ব করতে পারলে আপনি নিজেকে একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে পরিচয় দিতে পারবেন। এরপরে আপনি ইনডিজাইন শিখে নিতে পারলে আরো ভাল হয়।

সম্পুর্ন গ্রাফিক ডিজাইন শিখতে কত সময় লাগবে?

গ্রাফিক ডিজাইন শেখা পুরটাই আপনার আগ্রহ এবং প্রাক্টিসের উপর নির্ভর করবে। ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে আপনি গ্রাফিক ডিজাইনের সবকিছু জানতে পারবেন ঠিকই কিন্তু এক্সপার্ট লেভেলের ডিজাইনার হতে চাইলে অবস্যই এর পেছনে আপনাকে যথেষ্ট শ্রম দিতে হবে। আপনি যত সময় দিবেন ডিজাইন সম্পর্কে তত ভাল ভাল আইডিয়া আসবে। আর গ্রাফিক ডিজাইনারে মুল পুজি হচ্ছে আইডিয়া। কোন কাজ আপনি যত সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করবেন আপনার কাজের মান তত উন্নত হবে। তবে কমপক্ষে ৬ মাস প্রাক্টিস না করে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে না যাওয়াই উত্তম।

গ্রাফিক ডিজাইন শিখে কোন কোন সেক্টরে কাজ করতে পারব?

গ্রাফিক ডিজাইন ভাল ভাবে শেখার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করতে পারবেন। যেমনঃ-

১। ইন্টারেক্টিভমিডিয়া

২। প্রমোশনাল ডিসপ্লে

৩। কর্পোরেট রিপোর্টস

৪। জার্নাল

৫। মার্কেটিং ব্রোশিউর

৬। সংবাদপত্র

৭। ম্যাগাজিন

৮। লোগো ডিজাইন

৯। ব্যানার/পোস্টার ডিজাইন

১০। বিজনেস কার্ড ডিজাইন ইত্যাদি।

ফটোশপ কি?

ফটোশপ সম্পর্কে জানেনা এমন লোকের সংখ্যা পৃথিবীতে খুব কম। কম্পিউটার না জানলেও অনেকে জানে যে ফটোশপ দিয়ে ছবি এডিটিং এর কাজ করা হয়। ফটোশপ একটি সফটওয়্যার যার মাধ্যমে আপনি স্থিরচিত্র/ছবির কাজ করতে পারবেন। ফটোশপের সকল কাজ পিক্সেলের উপর নির্ভর করে হয়ে থাকে। এর মাধ্যমে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, বই, ম্যাগাজিন, ব্যানার, পোস্টার ইত্যাদির কাজ করা হয়ে থাকে। গ্রাফিক ডিজাইনে ফটোশপ অনেক গুরুত্বপুর্ন একটি অংশ। ফটোশপে আপনি একটি নির্দিষ্ট ছবির উপরে বিভিন্ন রকম কাজ করতে পারবেন।

ইলাস্ট্রেটর কি?

ইলাস্ট্রেটর ও গ্রাফিক ডিজাইনের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। ইলাস্ট্রেটর ভেক্টর রাশির মাধ্যমে কাজ করে থাকে। ফটোশপে আপনি একটি নির্দিষ্ট ছবির উপরে নানা রকম কাজ করতে পারবেন কিন্তু ইলাস্ট্রেটরে আপনি কোন ছবির উপরে কাজ করতে পারবেন না। ইলাস্ট্রেটরে আপনি আপনার নিজের আইডিয়া কাজে লাগিয়ে ইচ্ছেমত বিভিন্ন ব্যানার, পোস্টার, বিজনেস কার্ড ইত্যাদি ডিজাইন করতে পারবেন।

শুধু ফটোশপ ও ইলাস্ট্রেটর শিখলেই কি গ্রাফিক ডিজাইনার হতে পারবো?

হ্যাঁ পারবেন। তবে ফটোশপ ও ইলাস্ট্রেটরের পাশাপাশি ইন ডিজাইন, অটোক্যাড, ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে পারলে ভাল হয়। কারন যখন আপনি একাধিক বিষয়ের উপরে এক্সপার্ট হবেন তখন অবস্যই স্বাভাবিকের চাইতে বেশি কাজ পাবেন।

চাকরিরত অবস্থায় গ্রাফিক ডিজাইন শেখা এবং অনলাইনের আয় করা কি সম্ভব?

অবস্যই সম্ভব। আপনি আপনার কাজের ফাকে ধিরে ধিরে গ্রাফিক ডিজাইন শিখতে পারবেন এবং অবসর সময়ে প্রাক্টিস করে নিজেকে দক্ষ করে তুলতে পারবেন। এরপর আপনি অনলাইনে কাজ করতে পারবেন। যেহেতু অনলাইনের কাজ গুলো বেশিরভাগ রাতে হয়। কারন অনলাইন মার্কেটপ্লেসের বায়ার বেশিরভাগ বিদেশী তাই তাদের কার্জক্রম রাতেই হয়ে থাকে।

গ্রাফিক ডিজাইন শিখে কিভাবে পরিচিতি লাভ করবো?

সম্পুর্ন ভাবে গ্রাফিক ডিজাইন শেখার পর নিজের কাজ সবার কাছে উপস্থাপন করা এবং নিজের পরিচয় তৈরি করা অত্যন্ত জরুরি। এজন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন বড় বড় সার্চ ইঞ্জিন আছে যেখানে একাউন্ট খুলে নিজের তৈরি কিছু কাজ সাবমিট করে রাখনু যাতে সবাই আপনার কাজ দেখে আপনার দক্ষতা যাচাই করতে পারে।

সবাইকে অনেক ধন্যবাদ। আজ এপর্যন্তই আগামিতে দেখা হবে নতুন কোন বিষয় নিয়ে, ততদিন ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। খোদা হাফেজ।

Facebook Comment