ডিজাইন হবে ইনডিজাইন দিয়ে! - Graphic School

Blog

ডিজাইন হবে ইনডিজাইন দিয়ে!

আমাদের সবারই কম বেশি ইনডিজাইন সম্পর্কে জানা আছে। ইনডিজাইন হলো এডোবির একটি সফটওয়্যার অ্যাপলিকেশন। আমরা সবাই পেজমেকার নামের অ্যাপলিকেশনের সাথে পরিচিত বা নাম শুনেছি। ইনডিজাইন ঠিক তেমনি একটি অ্যাপলিকেশন সফটওয়্যার। কিন্তু আমরা জানিনা এই অ্যাপলিকেশন দিয়ে কি কাজ করা হয়?

চলুন জেনে নাই কি কাজ করা হয় এই ইনডিজাইন দিয়ে।

এডোবি ইনডিজাইন দিয়ে মূলত বিভিন্ন বই, ম্যাগাজিন ইত্যাদি ডিজাইনের কাজ করা হয় কাজ করা হয়। এখন অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে যে, এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইলাস্ট্রেটর থাকতে কেনো এডোবি ইনডিজাইন ব্যবহার করবো।

তো চলুন রহস্য উদঘাটন করা যাক কেনো আমরা এডোবি ইনডিজাইন দিয়ে ডিজাইন করবো?

আমরা যতো ভালো কম্পিউটার ব্যবহার করিনা কেনো, বেশি বেশি আর্টবোর্ড নিয়ে কাজ করার সময় কম্পিউটার হ্যাং করে বা কাজ করা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু এক্ষেত্রে এডোবি ইনডিজাইনে আপনি যদি অধিক আর্টবোর্ড নিয়ে কাজ করেন তারপরেও আপনার কম্পিউটার ভালো রকম ভাবেই কাজ চালিয়ে যাবে। ফলে আপনাকে বার বার সমস্যার সম্মুখীন হতে হবেনা।

মোটামুটি আমরা সবাই জানতে পারলাম এডোবি ইনডিজাইন কি এবং এটা দিয়ে কি কাজ করা হয়। এখন তাহলে আমরা জেনে নেই ইনডিজাইন দিয়ে কিভাবে ডিজাইন করবো?

ইনডিজাইনে সাধারনত ৩ ধরনের কন্টেনার ব্যবহার করা হয়। এগুলো হলোঃ

  • আন-এসাইন্ড কন্টেনার
  • গ্রাফিক কন্টেনার এবং
  • টেক্সট কন্টেনার।

(ইনডিজাইনের অবজেক্ট ও লেয়ার ব্যবহার করার জন্য এই ৩টি বিষয় মনে রাখা অনেক জরুরী।)

এখন জেনে নেই এই কন্টেনার দিয়ে কি কি কাজ করা যায়?

আন-এসাইন্ড কন্টেনারঃ আন-এসাইন্ড ফ্রেমটি দিয়ে আপনি ফিল, স্ট্রোক ইত্যাদির মাধ্যমে নানা রকমের অবজেক্ট তৈরী করে নিতে পারবেন।

গ্রাফিক কন্টেনারঃ এই অপশনটি দিয়ে আপনি গ্রাফিক সেপ তৈরী করতে পারবেন।

টেক্সট কন্টেনারঃ টেক্সট কন্টেনার দিয়ে কি কাজ হবে এটা হয়তো সবাই বুঝতে পারছেন। এই টেক্সট কন্টেনার দিয়ে অনেক লেখালেখির কাজ করা হয়।

এখন আমরা আমরা জানবো ইনডিজাইনের ছোটো বড় টুলস সম্পর্কেঃ

মূলতো ইনডিজাইনের টুলস এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইলাস্ট্রেটরের মতোই। আপনি যদি ভালো ভাবে ওইসব টুলস সম্পর্কে ভালো রকমের অভিজ্ঞ হন তাহলে এখানে আপনি অনায়াসেই যেকোনো টুলস নিয়ে কাজ করতে পারবেন।

এখন আপনি যদি নতুন ডিজাইন করতে চান তাহলে আপনাকে মেনু বার থেকে File>New>Document এ ক্লিক করতে হবে। তারপরে একটি টেবিল আসবে। এখানে আপনি ফাইলটার নাম, প্রয়োজন মতো মাপ, পেজের সংখ্যা (যদি ভাগ ভাগ করে তৈরী করা হয়), ওরিয়েন্টেশন(আসলে ডকুমেন্টটি পোর্ট্রেট হবে নাকি ল্যান্ডস্কেপ হবে), কতোটি কলাম হবে, ডকুমেন্টটি কোথায় ব্যবহার করা হবে এই সবকিছু নিজের মতো করে এখানেই ঠিক করে নিতে পারবেন।

প্রয়োজন অনুসারে সবকিছু ঠিকঠাক মতো বসিয়ে নিয়ে OK বাটনে ক্লিক করলে একটি গাকা ডকুমেন্ট তৈরী হবে। মূলতো আপনি এখানেই ডিজাইন করতে পারবেন।

প্রথমেই বলা হয়েছে এডোবি ইনডিজাইন এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইনডিজাইনের মতোই। এখানে আপনি মেনুবার থেকে কন্ট্রোল প্যানেলে গিয়ে টেক্সট, ইমেজ বা অন্য সব ধরনের ফাইলের সব রকম পরিবর্তন করতে পারবেন।

তারপর টুলস প্যানেল থেকে ফাইল জুম ইন/আউট করা যাবে ,কাটা যাবে ইত্যাদি কাজ করে আপনি একটি সম্পুন্ন ডিজাইন করা যাবে।

 

আপনার ডিজাইন পুরোপুরি তৈরী হয়ে যাওয়ার পরে আপনি সরাসরি প্রিন্ট ও করতে পারবেন এবং যদি আপনি ফাইলটি সেভ করতে চান তাহলে Save As এ ক্লিক করুন। Save As এ ক্লিক করার পরে অন্য একটি টেবিল আসনে। এখানে আপনি ফাইলটি কোথায় সেভ করে রাখবেন সেইটা সিলেক্ট করে Ok বাটনে প্রেস করুন।

আমরা এডোবি ইনডিজাইন কি ও এর দ্বারা কি কি কাজ করা যায় সেই সম্পর্কে জানলাম। আর মাঝে মধ্যে আমি এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইলাস্ট্রেটর এর কথা বলছি। আসলে কম্পিউটার জগতে কোনো কিছুর কাজ অন্য কোনো কিছু দিয়ে সম্পুন্ন হয়না। আমি শুধু বুঝানোর জন্য অ্যাপলিকেশন দুটির নাম তুলে ধরেছি।

আপনারা যারা ম্যাগাজিন নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছেন তারা অন্য কোনো অ্যাপলিকেশন সফটওয়্যার ব্যবহার না করে এডোবি ইনডিজাইন ব্যবহার শুরু করুন। কারণ এই অ্যাপলিকেশনটি অনেক সহজেই যে কেউ ব্যবহার করতে পারবেন।

সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে এখানেই শেষ করছি। আসসালামু আলাইকুম।

 

লিখেছেন

মোঃ রিয়াদ আহম্মেদ

Facebook Comment