ফটোশপে Effect এর ব্যবহার জেনে নিন! - Graphic School

Blog

ফটোশপে Effect এর ব্যবহার জেনে নিন!

ফটোশপ ব্যবহার করে সুন্দর ডিজাইন তৈরি করবেন, ইমেজে সমস্যা থাকলে দুর করবেন, পেইন্ট করবেন, স্পেশাল Effect দেবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, আপনার নিশ্চয়ই মনে আছে Star Strokeএর কথা। কিংবা বর্তমানের নানারকম ফ্যান্টাসি কিংবা সাইন্স ফিকশনের মজাদার কাজের কথা। কখনো কি মনে হয়নি নিজের কিংবা পরিচিত কাউকে তেমনি মজাদার কোন ডিজাইনে পরিনত করার।

হ্যাঁ আপনি ফটোশপে সেটা করতে পারেন Liquidify Effect ব্যবহার করে।

  • যে ছবিতে Liquidify Effect ব্যবহার করে পরিবর্তন করতে চান সেটি ওপেন করুন।
  • মেনু থেকে কমান্ড দিন Filter – Liquidify, Liquidify Window-তে ছবিটি ওপেন হবে।
  • নিজে থেকে Forward Warp Tool সিলেক্ট হবে। এর জন্য ডানদিকের মেনু থেকে ব্রাশ সাইজ ঠিক করে নিন।
  • ইমেজের যেখানে পরিবর্তন করতে চান সেখানে ক্লিক করে ড্রাগ করুন।
  • অতিরিক্ত পরিবর্তন হলে Reconstruct Tool টুল সিলেক্ট করুন এবং ক্লিক করে ড্রাগ করুন। যাকিছু পরিবর্তন করেছেন সেটা বাতিল হয়ে আগের অবস্থার দিকে পরিবর্তন হবে।
  • কোন যায়গাকে পরিবর্তনের বাইরে রাখার জন্য Freeze Mask টুল ব্যবহার করে পেইন্ট করুন।
  • আপনি কোথায় কতটুকু পরিবর্তন চান সেটা নির্ভর করে বিভিন্ন টুল ব্যবহার করে দেখুন।
  • পছন্দমত পরিবর্তনের পর OK বাটনে ক্লিক করুন।

কোন ব্যক্তির ছবি এডিট করার আগে আরেকবার ভেবে নিন। যার ছবি তিনি সেটা পছন্দ নাও করতে পারেন। কিন্তু শুধুমাত্র ব্যক্তির ছবিই পরিবর্তন করতে হবে এমন কথা নেই। অন্য ছবি থেকেও মজার কিছু পেতে পারেন।

ফটোশপে Plug In Eye Candy ব্যবহার করুন বিভিন্ন ধরনের Effect-এর জন্য। একসময় Black Box নামে অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ফটোশপ Plug ব্যবহার করা হতো। সেটা দিয়ে Drop Shadow তৈরি করা যেত খুব সহজে। ধারনা করতেই পারেন ফটোশপের নিজস্ব Drop Shadow তৈরির ব্যবস্থা তখন ছিল না, প্রয়োজন হলে Brush ব্যবহার করে এঁকে নিতে হত। এখন ফটোশপে এ ধরনের বহু সুযোগ আনা হয়েছে। অন্যদিকে নাম বদল করা Black Box Eye Candy নামে আরো উন্নত হয়েছে।

আইক্যান্ডি ৬. ভার্শনে Effect বা Filter দুভাগে বিভক্ত। একটি ভাগে রয়েছে Text বা Selection

অর্থাৎ Text টাইপ করে সেখানে ব্যবহার করবেন অথবা ইমেজের কোন অংশ সিলেক্ট করে সেখানে ব্যবহার করবেন। মুলত সিলেকশন বা Text এর চারিদিকে বা সিলেক্ট করা অংশে এই Effect ব্যবহৃত হবে। আরেক ধরন হচ্ছে Texture। ইট, পাথর, কাঠ, মার্বেল, কাপড় থেকে শুরু করে যে কোন ধরনের Texture এর জন্য।

Effect গুলো কতটি কাজে ব্যবহার করে দেখা যাক।

ব্যাকলাইটঃ এর মাধ্যমে Text বা সিলেকশনের পেছনে নানা ধরনের Light সোর্স তৈরি করা যায়। অনেকগুলো প্রিসেট রয়েছে। এছাড়া রং, সোর্স, লাইট বিম ইত্যাদি পছন্দমত পরিবর্তন করার ব্যবস্থা রয়েছে।

  • ব্যবহারের জন্য Text বা সিলেকশন Layer থেকে কমান্ড দিন Filter – Alien Skin Eye Candy 6 : Text & Selection – Backlight
  • পছন্দমত প্রিসেট সিলেক্ট করুন।
  • প্রয়োজনীয় পরিবর্তন করে নিন।

আইক্যান্ডির একটি বড় সুবিধে হচ্ছে মুল Layer অপরিবর্তিত রেখে Effectএ র জন্য নতুন আরেকটি Layer তৈরি করে। কাজেই নানারকম পরীক্ষা করে দেখতে কোন সমস্যা নেই।

Kopona: সুর্য থেকে বেরিয়ে আসা আলোর Effect তৈরির জন্য করোনা। বিভিন্ন প্রিসেটে নানারকম রং এবং Shape রয়েছে। সেইসাথে সেগুলো নিজের পছন্দমত পরিবর্তন করার ব্যবস্থা। ব্যবহারের নিয়ম আগের মতই। মেনু থেকে Effect এর কমান্ড দিন এবং প্রিসেট ব্যবহার করুন অথবা পছন্দমত পরিবর্তণ করে নিন।

Drip: তরল পদার্থ গড়িয়ে পড়ার Effect দেয়ার জন্য । লাল রং-এর লেখাকে সদ্য তরল রং বা রক্ত দিয়ে তৈরি দেখানো সম্ভব খুব সহজেই।

Fire: লেখা কিংবা সিলেকশনে আগুন ধরিয়ে দিতে পারেন ফায়ার Effect ব্যবহার করে। কোন দৃশ্যে আগুল লাগা কিছু দেখাতে চাইলে এই Effect-এ কয়েক সেকেন্ডই যথেষ্ট। এই Effectগুলো ছাড়াও আরো যা রয়েছে তা হচ্ছে Bevel, Chroma, Extrution, Glass, Gradient, Motion Trail, Perspective Shadow, Rust, Smoke, Snow Default ইত্যাদি Effect।

আর Texture অংশে Effect গুলো হচ্ছে Animal Far, Brick Wall, Brush Metal, Diamond Plate, Marble, Reptile Skin, Ripple, Stone Wall, Wives, Wood, Water Drop ইত্যাদি।

ফটোশপে কাজ করার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় Plug In গুলোর একটি Alien Skin-এর তৈরি Eye Candy.

Adobe Bridge ব্যবহার করুন ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর কিংবা After Effects এর সাথে যারা অনেক বেশি ইমেজ বা ভিডিও নিয়ে কাজ করেন তাদের অনেক সময়ই সেগুলোর Preview দেখে নেয়া প্রয়োজন হয়। কিংবা ফটোগ্রাফারদের প্রয়োজন হয় ফরম্যাটের ইমেজগুলোর Preview দেখার। এজন্য অনেকগুলো সফটওয়্যার থাকলেও প্রত্যেকেরই রয়েছে বিশেস কিছু ফরম্যাট ব্যবহারের সীমাবদ্ধতা। যেমন ইলাস্ট্রেটরের Drawing কিংবা EPS ফরম্যাট। Adobe Bridge ব্যবহার করে এসব সীমাবদ্ধতা দুর করতে পারেন সহজেই। সেইসাথে এটা কাজ করে এডোবির সবগুলো সফটওয়্যারের ভেতর থেকে। After Effects এর Effect সেখানে দেখে সরাসরি ব্যবহার করা যায় Bridge থেকে।

Adobe Bridge দেয়া হয় Adobe Creative Suite এবং Photoshop উভয়ের সাথেই। পৃথকভাবে ওপেন করতে পারেন অথবা সফটওয়্যারের ভেতর থেকে ওপেন করতে পারেন।

  • Bridge ওপেন করলে এ ধরনের একটি Interface দেখতে পাবেন। যে ফোল্ডারের ইমেজ, ভিডিও ফাইল দেখতে চান সেই ফোল্ডার সিলেক্ট করবেন বামদিকের ফোল্ডার ট্রি থেকে।
  • ফোল্ডারের নিচের অংশ থেকে Filter ব্যবহার করতে পারেন। ইমেজের Date, Orientation (Portait কিংবা Landcape), ইত্যাদি থেকে শুরু করে নির্দিষ্ট ক্যামেরা সেটিং যেকোন ধরনের ইমেজগুলো দেখতে পারেন ইচ্ছে করলে।
  • মাঝখানের প্রধান অংশে Preview (কিংবা ফোল্ডারের নাম) দেখা যাবে। ফোল্ডারের নামে ডাবল ক্লিক করে সাব-ফোল্ডারে প্রবেশ করা যাবে।
  • Preview উইন্ডোর নিচে Slider-er ব্যবহার করে Preview এর আকার বড়-ছোট করা যাবে।
  • ইমেজ বা ভিডিওতে রাইট-ক্লিক করে কোন সফটওয়্যারে ওপেন করতে চান সিলেক্ট করে ওপেন করা যাবে। ইচ্ছে করলে কোন ফাইলকে লক করা যাবে এখান থেকেই।
  • রাইট-ক্লিক করে ইমেজ বা ভিডিওকে কপি করা, অন্য যায় সরানো ইত্যাদি কাজ করা যাবে।
  • কোন ইমেজ সিলেক্ট করলে ডানদিকে Preview দেখা যাবে। সেখানে ক্লিক করলে একটি জুম উইন্ডো পাওয়া যাবে যা নির্দিষ্ট যায়গায় সরিয়ে নির্দিষ্ট অংশ বড় করে দেখা যাবে।
  • Preview উইন্ডো থেকে Slider ব্যবহার করে বা প্লে বাটন ব্যবহার করে ভিডিও দেখা যাবে।
  • Preview এর নিচে ইমেজ বা ভিডিওএর Metadata দেখা যাবে। ক্যামেরা উঠানো ছবি ক্যামেরা সেটিং সহ ভিডিও এর ক্ষেত্রে অডিও এবং ভিডিও এর তথ্য জানা যাবে এখান থেকে। ইচ্ছে করলে নতুন Metadata লিখে দিতে পারেন এখানেই। Metadata ব্যবহারের জন্য Templete তৈরি করে সেটা ব্যবহার করতে পারেন।
  • ভিডিও ফাইল থেকে অডিওকে Equalized করার জন্য সরাসরি সাউন্ডবুথে ওপেন করা যাবে রাইট-ক্লিক করে।
  • অনেকগুলো ইমেজ ফাইলকে একবারে নাম বদলানোর জন্য ব্যবহার করতে পারেন Bridge। ইমেজগুলো সিলেক্ট করুন এবং রাইট-ক্লিক করে মেনু থেকেBatch Rename সিলেক্ট করুন।
  • ক্যামেরার ইমেজ প্রসেস করার জন্য রাইট-ক্লিক করেOpen in camera Raw সিলেক্ট করুন।
  • আফটার Effects এর কোন Effect কোন লেয়ারে ব্যবহারের জন্য সেই Layer-এ অবজেক্ট সিলেক্ট করা অবস্থায় Bridge ওপেন করুন এবং Effects ফোল্ডারে নিদির্ষ্ট Effect বের করুন। সেখানে ডাবল-ক্লিক করলে Effect ব্যবহৃত হবে।

যারা এসিডিসি (ACDSee) বা এধরনের অন্য সফটওয়্যার ব্যবহারে অভ্যস্থ তাদের কাছে শুরুতে এডোবি Bridge কিছুটা বেমানান মনে হতে পারে। কিন্তু আপনি যদি এডোবির Photoshop, Lightroom, Illustrator,After Effect, প্রিমিয়ার ইত্যাদি ব্যবহার করেন তাহলে এরসাথে তুলনা হয় না অন্য সফটওয়্যারের।

আমার এই আর্টিকেলটি আপনাদের অনেক কাজে লাগবে আশা করছি। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে এখানেই শেষ করছি। আসসালামু আলাইকুম।

লিখেছেন

মোঃ রিয়াদ আহম্মেদ

Facebook Comment