মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট কি? চলুন জেনে নিই। - Graphic School

Blog

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট কি? চলুন জেনে নিই।

আজকের পর্বে আমরা জানবো মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট নিয়ে। মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট কিভাবে ব্যবহার করতে হয়, এর মাধ্যমে কি কি কাজ করা যায় এসব বিস্তারিত আমরা আজকে আলোচনা করবো। আশাকরি সবাই একটু সময় দিয়ে লেখাটি পড়বেন তাহলে মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট সম্পর্কে আপনার যথেষ্ট ধারনা হয়ে যাবে। তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করি।

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট কি?

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট হচ্ছে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন কতৃক মাইক্রোসফট অফিসের অন্তর্ভুক্ত একটি সফটওয়্যার। এটি প্রথম আবিষ্কৃত হয় ১৯৯০ সালে। মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট এর প্রথম সংস্করণ ছিল ১৯৯৫ ভার্সন। এরপর এটি ৮ দফায় আপডেট হয়ে সর্বশেষ ২০১৬ ভার্সনে এসে পৌছেছে। ১৯৯৫ থেকে ২০০৭ ভার্সন পর্যন্ত যে ভার্সনগুলো এসেছে সেগুল ছিল সবার জন্য উন্মুক্ত অর্থাৎ ফ্রি। কিন্তু ২০১০ ভার্সন রিলিজ করার সময় মাইক্রোসফট কর্পোরেশন তারা আর ফ্রি না রেখে সেটাকে প্রিমিয়াম ভার্সনে রিলিজ করে। অর্থাৎ এ ভার্সনটি ব্যবহার করতে হলে অবস্যই টাকা খরচ করে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন কর্তৃক অনুমোদন নিয়ে তারপর ব্যবহার করতে হবে। এটা মূলত কোন তথ্যকে সাজিয়ে সুন্দর ভাবে প্রেজেন্টশনের মাধ্যমে দেখানোর কাজে ব্যবহৃত হয়। এটাতে মোট ১০টি রিবন/মেনু আছে যেগুলো আপনাকে প্রেজেন্টেশন তৈরি করতে সাহাজ্য করবে। মোট ১০২ ভাষায় এ সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যায়। বর্তমানে এটা দিয়ে ভিডিও তৈরি করা যায়।

এটা হচ্ছে মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট ২০১৬ এর হোম ইন্টারফেস

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্টের গুরুত্ব

আমাদের দৈনদন্দিন জীবনে এর যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। ছাত্রজীবন থেকে চাকরিজীবন পর্যন্ত সবখানে এর প্রয়োজনীয়তা উপল্ধি করতে পারবেন। ছাত্র-ছাত্রীর করা বিভিন্ন জরীপের তথ্য ছবিসহকারে প্রজেন্টেশন তৈরি করে শিক্ষকদের সামনে উপস্থাপন করতে হয়। শিক্ষকগন পাওয়ারপয়েন্ট পেজেন্টেশনের মাধ্যেম ক্লাস পরিচালনা করে থাকে। আবার চাকরিক্ষেত্রে অফিসের বিভিন্ন প্রজেক্ট এর বিবরন এবং ধাপসমুহ প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে দেখাতে হয়। অনলাইন মার্কেটপ্লসে পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের অনেক দাম আছে। যদি আপনি পাওয়ারপয়েন্টে এক্সপার্ট হতে পারেন তাহলে বায়ারদের চাহিদা অন্যযায়ী আকর্ষনীয় প্রেজেন্টেশন তৈরি করে ঘরে বসেই আয় করতে পারবেন। যদি পাওয়ারপয়েন্টএর কাজ আপনার না জানা থাকে তাহলে আপনি এসব কাজ কোন ভাবেই করতে পারবেন না।

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট এ কি কি কাজ করা যায়?

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট প্রধানত ব্যবহার হয় স্লাইড প্রেজেন্টেশন তৈরির কাজে। একাধিক স্লাইড ব্যবহার করে আপনি বিভিন্ন তথ্য সম্বলিত একটি প্রেজেন্টেশন তৈরি করতে পারেন। অনেকগুলো ছবি সম্বলিত এ্যালবাম তৈরি করে রাখতে পারবেন।

ধরুন আপনার শিক্ষক আপনাকে দেশের কোন একটি জায়গা সম্পর্কে প্রেজেন্টশন তৈরি করতে বললেন। তখন আপনি সেই যায়গা সম্পর্কিত সকল তথ্য এবং প্রয়োজনীয় ছবি সংগ্রহ করে কতগুলো স্লাইডের মাধ্যমে উপস্থাপন করতে পারবেন। প্রতিটি স্লাইডে সুন্দর সুন্দর এ্যানিমেশন দিয়ে আরো আকর্ষনীয় করে তুলতে পারবেন। আবার মনে করুন অফিসের মিটিংএ কোন প্রজেক্ট সম্পর্কে আলোচনা করতে হবে সেটাও আপনি পাওয়ারপয়েন্টের মাধ্যমে করে ফেলতে পারবেন। প্রেজেন্টেশনে প্রয়োজনীয় ছবি, অডিও, ভিডিও দিতে পারবেন তাহলে আপনি যেটা বুঝাতে চাচ্ছেন সেটা সকলেই সহজে বুঝতে পারবে। এর মাধ্যমে আপনি ডিজিটাল জীবনবৃত্তান্ত(CV) ডিজাইন করে দেখাতে পারবেন এবং সেটা কাউকে পাঠাতে পারবেন।

শেপ ব্যবহার করে যেকোন কিছু ডিজাইন করতে পারবেন আবার প্রতিটি শেপের সাথে এ্যানিমেশন দিয়ে আরো আকর্ষনীয় করতে পারবেন ।

কোন জায়গা বা দেশের উপর ডকুমেন্টরি তৈরি করতে পারবেন।

ক্লাসে প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারবেন। বিভিন্ন ভিডিওর শুরুতে একরকম ইন্ট্রো ভিডিও দেখা যায় সেটাও আপনি পাওয়ারপয়েন্ট ব্যবহার করে তৈরি করতে পারবেন। এমনকি স্লাইড শো দিয়ে ভিডিও তৈরি করতে পারবেন, স্ক্রিন রেকর্ড এর মাধ্যমে যেকোন কাজ রেকর্ড করে সেভ করতে পারবেন।

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট কিভাবে শিখবো?

এটি শিখতে হলে আপনাকে কোন প্রতিষ্ঠান গিয়ে মাইক্রোসফট অফিস এ্যাপ্লিকেশন কোর্সটি করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার তাদের নিয়ম মেনে এবং অনেকগুলো অর্থের বিনিময়ে শিখতে হবে। অথবা আপনি ঘরে বসে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে শিখতে পারবেন। কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে কোর্স করার চাইতে ঘরে বসে শেখাটা অনেক সহজ এবং সল্প খরচে এটি করতে পারবেন। আপনাকে শুধু ভিডিও টিউটোরিয়াল গুলো দেখতে হবে এবং সে অনুযায়ী প্র্যাক্টিস করতে হবে। আপনি যত বেশি সময় ও মনযোগ দিতে পারবেন তত তারাতারি শিখতে পারবেন।

মাইক্রোসফট পাওয়ারপয়েন্ট সহ আরো অন্যান্য ফ্রি ভিডিও টিউটোরিয়ালের জন্য ভিজিট করুন এখানে…

ফ্রি ভিডিওগুলো পছন্দ হলে ডিভিডি অর্ডার করতে ভিজিট করুন এখানে…

তো আজকের পর্বে এ পর্যন্ত দেখা হবে আগামী কোন পর্বে নতুন কোন বিষয় নিয়ে। ততক্ষন সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ।

Facebook Comment